আমার একটি ভিন্নধর্মী ভিন্ন স্বাদের কবিতা - "উৎসব"

in আমার বাংলা ব্লগ2 months ago


heading_image.png


↜ উৎসব ↝


পুজো মানেই আনন্দ আলোকময় চারিধার;
সুন্দর পোশাক আর উদ্দীপনা নিয়ে
রাস্তায় নামে হরেক রকম মানুষের ঢল ।
পাড়ায় পাড়ায় খুশি, হাসে ছেলে বুড়োর দল;
অনেক দিন পর সেই আনন্দ নিয়ে
ঘরে ফিরেছি সীমান্তের উৎসব রেখে ।
প্রতিদিন অনিশ্চয়তা আর আকস্মিকতা
নিয়ে উৎসব রচিত হয়, ভোর থেকে রাতে;
গুলির এক একটা আওয়াজ আতশবাজি
আর কামানের হুঙ্কার শব্দ বাজি হয়ে;
আমাদের উৎসব পালিত হয় হাসি কান্নায় ভেসে।
আজকে আমাকে পাঠানো হলো ঘরে,
এই দুর্গা পূজার আনন্দকে দু'হাতে জড়িয়ে।

আমি একটু অন্য রকম হয়ে গেছি,
এই উৎসব আমাকে টানে না ।
এই মাটির মূর্তিতে আমি মাতৃত্ব খুঁজি না,
আমার ঘরে সহস্ত্র রাত্রি পেরিয়ে
পথ চেয়ে বসে আছে জগৎ জননী ।
আমার সব উৎসব তাঁকে আবর্তিত করে,
পুজো হয় বিশ্বাসের আলোকে নিভৃতে
হৃদয়ের মাঝে হৃদয়ের আহ্বানে।
তোমার দুর্গা আলোয় ভরা
বিসর্জন যাবে দশমীর ঘন্টা বাজলে,
আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে।

Sort:  
 2 months ago 

অনেক সুন্দর হয়েছে দাদা আপনার লেখা উৎসব কবিতাটা। উৎসবের এই সময়টাতে সকল শ্রেণির পেশার মানুষেরাই একটু আনন্দ খুজে জীবনটাকে উপভোগ করে। যা আপনার কবিতার মাঝেও ফুটে উঠেছে।

কবিতাটা অসাধারণ হয়েছে দাদা। আপনার জন্য ভালোবাসা এবং শুভ কামনা।

 2 months ago 

ওয়াও!!! দারুন কবিতা লিখেছেন ভাই দুর্গাপুজা নিয়ে।সমসাময়ীক একটি কবিতা। আপনি এতো সুন্দর যে কবিতা লেখেন তা জানা ছিল না।খুব ভালো লাগলো দুর্গাপুজা বিষয়ক কবিতাটি।ধন্যবাদ আপনাকে ভাই।।।

 2 months ago 

দাদা আপনি অসাধারণ কবিতা লিখেন। কবিতাটি পড়ে খুব ভালো লেগেছে আমার কাছে। আপনি সবসময় সমসাময়িক কবিতা লিখেন যা আমার খুব ভালো লাগে। প্রত্যেকটা লাইন একদম মনে ছুঁয়ে গেলো।

 2 months ago 

পুজো মানেই আনন্দ আলোকময় চারিধার;
সুন্দর পোশাক আর উদ্দীপনা নিয়ে
রাস্তায় নামে হরেক রকম মানুষের ঢল ।

আসলেই দাদা পূজো মানেই চারদিকে আনন্দ। কারণ এটি একটি উৎসব এর দিন, উৎসব এর সময়। আর এই সময়টা সবাই সবার মতো আনন্দ করে কাটায়, সবাই মাঝেই থাকে আলাদা একটা আনন্দের জোয়ার।

 2 months ago (edited)

তোমার দুর্গা আলোয় ভরা
বিসর্জন যাবে দশমীর ঘন্টা বাজলে,
আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে।

অনেক গভীরতা রয়েছে কবিতার মধ্যে। ধর্ম মানুষের একটা বিশ্বাস। প্রতি মানুষের চিন্তা ধারার মধ্যে বিচিত্রতা রয়েছে। দাদার চিন্তা ধারার মধ্যে অনেক কঠিন বাস্তবতা রয়েছে। আমি মায়ের কাছে pray করি। বর্তমানে করোনা মহামারি থেকে মুক্তি দেয় যেন মা পৃথিবীর মানুষ আগের মতো আবার স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারে।। এটা মনের বিশ্বাস থেকে বলা। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে দাদা ।

 2 months ago 

আপনার লেখা নিয়ে কোন কথা হবে না দাদা, কারন আপনি কবিতায় ছন্দ না বরং অর্থবোধক কিছুকে দারুণভাবে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেন।

আমার ঘরে সহস্ত্র রাত্রি পেরিয়ে
পথ চেয়ে বসে আছে জগৎ জননী ।
আমার সব উৎসব তাঁকে আবর্তিত করে,
পুজো হয় বিশ্বাসের আলোকে নিভৃতে
হৃদয়ের মাঝে হৃদয়ের আহ্বানে।

অসম্ভব ভালো লেগেছে এই লাইনগুলো এবং স্পষ্টভাবে সত্যটা উপস্থাপন করেছেন। ধন্যবাদ

 2 months ago 

অসম্ভব সুন্দর হয়েছে দাদা আপনার কবিতাটি। সব ধর্মের লোকজন চাই একটি সুন্দর সভ্য সমাজ। এবং প্রত্যেকেই চায় অসুর মত অপশক্তিকে নিপাত করতে। আপনার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা রইল দাদা।

 2 months ago 

অসাধারণ লেখনী বরাবরের মতো দাদা।সত্যিই পূজা মানে আনন্দ,আর চিরাচরিত একটি প্রথা।কিন্তু দেবী দুর্গামা কয়েকটি দিনের জন্য মাত্র আসেন।কিন্তু আমাদের গর্ভধারিণী মা তো প্রতিটি মুহূর্ত আমাদের সঙ্গে আছেন।অনেক গভীরতা রয়েছে এই কবিতায় ।ধন্যবাদ দাদা।

menarik😍😍

[WhereIn Android] (http://www.wherein.io)

 2 months ago 

"আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে।" যথার্থ।

 2 months ago 

অসাধারণ দাদা,আপনি অসাধারণ একটি কবিতা লিখেছেন দূর্গা পূজা নিয়ে।আপনার কবিতাটি পড়ে আমার খুব ভালো লেগেছে। দুর্গা পূজা এলে ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সবাই আনন্দে মেতে উঠে।খুব ভালো লাগে পাড়ায় পাড়ায় আতশবাজি আওয়াজে মুখর হয়ে থাকে।

তবে দাদা আপনার এই লিখাটি আমার খুবই ভালো লেগেছে ।

"এই উৎসব আমাকে টানে না ।
এই মাটির মূর্তিতে আমি মাতৃত্ব খুঁজি না,
আমার ঘরে সহস্ত্র রাত্রি পেরিয়ে
পথ চেয়ে বসে আছে জগৎ জননী ।
আমার সব উৎসব তাঁকে আবর্তিত করে,
পুজো হয় বিশ্বাসের আলোকে নিভৃতে
হৃদয়ের মাঝে হৃদয়ের আহ্বানে"

ধন্যবাদ দাদা,এত সুন্দর একটি কবিতা আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য ।

 2 months ago 

কবিতা টা খুব ভালো হয়েছে।

 2 months ago 

দাদা এক কথায় অসাধারণ লিখেছেন। ছবিটা দেখেই বুঝা যাচ্ছে কি সুন্দর করে সাজিয়েছে পুরোটা জায়গা, সত্যি ইচ্ছা করছে ঐখানে চলে যাই। হয়তোবা এত সুন্দর একটা পরিবেশে পূজার উৎসব টা দেখতে পারলে নিজের কাছেই খুব ভালো লাগতো।

দাদা আপনি সবসময় খুব ভালো লিখেন প্রতিটা লাইন যেন মনকে ছুঁয়ে দিলে এক কথায়।

 2 months ago 

দাদা আপনি দুর্গাৎসব নিয়ে অসম্ভব সুন্দর একটি কবিতা লিখেছেন।
"আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে"।
দাদা শেষের এই লাইন দুইটি অসাধারণ হয়েছে। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।

 2 months ago 

পুরো কবিতাটি অসাধারণ। প্রশংসার দাবি রাখেন আপনি । অভিনন্দন রইল সুন্দর কিছু উপহার দেওয়ার জন্য

 2 months ago 

দাদা আপনি অসাধারণ কবিতা লিখেন। কবিতাটি পড়ে খুব ভালো লেগেছে আমার কাছে। আপনি সবসময় সমসাময়িক কবিতা লিখেন যা আমার খুব ভালো লাগে। প্রত্যেকটা লাইন একদম মনে ছুঁয়ে গেলো।অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে দাদা ।

 2 months ago 

দাদা আপনি খুব সুন্দর একটি কবিতা আমাদের মাঝে উপহার দিয়েছেন। আপনার কবিতাটি পড়ে মনে হচ্ছে আপনি সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরীদের নির্দেশ করে কিছু কথা তুলে ধরেছেন। যারা প্রতিনিয়ত দেশমাতৃকার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। তাদের কাছে প্রিয় দেশ মায়ের মত। আমার কাছে আপনার কবিতার এই লাইন গুলো খুবই ভালো লেগেছে দাদা,

"অনেক দিন পর সেই আনন্দ নিয়ে
ঘরে ফিরেছি সীমান্তের উৎসব রেখে ।
প্রতিদিন অনিশ্চয়তা আর আকস্মিকতা
নিয়ে উৎসব রচিত হয়, ভোর থেকে রাতে;
গুলির এক একটা আওয়াজ আতশবাজি
আর কামানের হুঙ্কার শব্দ বাজি হয়ে;

 2 months ago 

দাদা বিজয়া দশমীর শুভেচ্ছা সুন্দর একটা কবিতা লিখেছেন। বিশেষ করে চারটি লাইন ,

তোমার দুর্গা আলোয় ভরা
বিসর্জন যাবে দশমীর ঘন্টা বাজলে,
আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে

মনের ভিতর কোথায় যেন টান দিয়েছে। সত্যিই অনবদ্য । ভাল থাকবেন দাদা ।

 2 months ago 

তোমার দুর্গা আলোয় ভরা
বিসর্জন যাবে দশমীর ঘন্টা বাজলে,
আমার দুর্গার অশ্রু শুকালেই,
পৃথিবী থেকে অসুররা নিপাত যাবে।


সত্যিই মন থেকে প্রার্থনা করি অসুররা সব নিপাত যাক। আমাদের নিজেদের মধ্যেও এক অসুর রয়েছে যে মাঝে মাঝেই মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে চায় একে আগে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।
সবাই যদি এভাবে চেষ্টা করে, তাহলে সত্যিই একদিন অসুররা নিপাত যাবে।

 2 months ago 

অসাধারন, অসামন্য,, অনাবদ্য ♥

 2 months ago 

অসাধারণ দাদা অসাধারণ,,, আপনি এত সুন্দর ভাবে অর্থ দিয়ে কবিতা লিখেছেন, যা পড়লে মানুষ সহজেই তার অর্থ খুঁজে পাবে। অনেক সুন্দর একটি কবিতা লিখেছেন দাদা। যেখানে মা এবং আপনাদের উৎসব নিয়ে অনেক সুন্দর ভাবে বিশ্লেষণ করা আছে। খুবই ভাল লেগেছে। অনেক ধন্যবাদ দাদা।

এটি অনেক মজার.
কামান এবং আতশবাজির আলোর শব্দে পরিবেশটি আরও উৎসবমুখর করে তোলে।
মজা কর বন্ধু।

 2 months ago 

ওয়াওওও!!! দারুণ হয়েছে দাদা কবিতাটি। প্রত্যেকটি লাইন এক একটি রচনা মনে হয়। আপনার কবিতা অনেক অর্থবহ হয়।

পুজো হয় বিশ্বাসের আলোকে নিভৃতে
হৃদয়ের মাঝে হৃদয়ের আহ্বানে।

 2 months ago 

এই মাটির মূর্তিতে আমি মাতৃত্ব খুঁজি না,
আমার ঘরে সহস্ত্র রাত্রি পেরিয়ে
পথ চেয়ে বসে আছে জগৎ জননী ।

জি, সমাজে থাকি, অনিচ্ছা সত্যেও কিছু সমর্থন দিতে হয়। তার পরেও ধর্ম নামের কোন গাছের তলে তো থাকতেই হয়।
মায়ের গান শুনে, আমরা মাথা নাড়ি, চোখে পানি নিয়ে আসি অথচ বারান্দায় পড়ে থাকা দুঃখিনী জগৎ জননীর আহাজারি আমরা ঘর থেকে শুনতে পাইনা। আপনাকে সবসময় স্বাগতম।

 11 days ago 

আমাদের উৎসব পালিত হয় হাসি কান্নায় ভেসে
আমাদেরও তাই হয়।একদিকে আনন্দ অন্যদিকে প্রিয়জন হারানোর কষ্ট। কথাগুলো ঠিক যেন আমার জন্যই।

Coin Marketplace

STEEM 0.61
TRX 0.10
JST 0.075
BTC 56002.98
ETH 4470.74
BNB 607.63
SBD 7.17